চেয়ারম্যানের বাণী

বিশ্বায়নের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে ব্যর্থ হয়ে বাংলাদেশের শিক্ষা ব্যবস্থা যখন ভঙ্গুর, শিক্ষার নামে দেশ থেকে যখন মেধা পাচার হয়ে যাচ্ছিল বিদেশে ঠিক তখনই আধুনিক সুযোগ সুবিধা উন্নত বিশ্বের আদলে বাংলাদেশে যাত্রা শুরু করে স্টামফোর্ড ফাউন্ডেশন। স্টামফোর্ড ফাউন্ডেশন এর প্রথম প্রয়াস স্টামফোর্ড কলেজ যা এখন থেকে প্রায় দেড় যুগ পূর্বে বাংলাদেশে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষার ক্ষেত্রে পথ চলা শুরু করে। ঢাকা শহর তথা বাংলাদেশের উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা ক্ষেত্রে স্টামফোর্ড কলেজ অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে। বিজ্ঞান, ব্যবসায় শিক্ষা মানবিক বিভাগ মিলিয়ে প্রতি শিক্ষাবর্ষে প্রায় ছয়শত ছাত্রছাত্রীকে এখানে শিক্ষা দেয়া হয়। স্টামফোর্ড কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করে শিক্ষার্থীরা বাংলাদেশের বিভিন্ন মেডিকেল কলেজ, সরকারিবেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের গন্ডি পেরিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়ছে। ডাক্তার, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, প্রকৌশলী, প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাসহ ব্যবসা বাণিজ্য বিভিন্ন ক্ষেত্রে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করে তারা সমাজে নিজের অবস্থান যেমন দৃঢ় করেছে তেমনি স্টামফোর্ড কলেজের মুখকে করেছে উজ্জ্বল।

 

স্টামফোর্ড কলেজের শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন সময়ে মানুষের প্রয়োজনে তাঁদের পাশে দাঁড়ায়। প্রাকৃতিক দুর্যোগ যেমনবন্যা, জলোচ্ছ্বাস, ঘূর্ণিঝড় শীতার্ত মানুষের পাশে ত্রাণ সামগ্রী সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয় স্টামফোর্ড কলেজের শিক্ষার্থী শিক্ষকগণ।

 

শুধু সিলেবাসভূক্ত পাঠ্যক্রমই নয় এর বাইরেও নানামুখী সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে তারা অংশগ্রহণ করে। শিক্ষাসফর, বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতা, বার্ষিক বনভোজন, ২১ ফেব্রæয়ারি, ২৬ মার্চ, ১৬ ডিসেম্বরে বিশেষ দেয়ালিকা প্রকাশ বৈশাখ বর্ষবরণ অনুষ্ঠান, টেলিভিশনে জাতীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা,  স্টামফোর্ড কলেজ প্রবাহ নামে কলেজ থেকে বার্ষিকী প্রকাশ, ফাল্গুন উদ্যাপন সহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করে থাকে।

 

এখানে একঝাঁক প্রাণবন্ত, উচ্চ শিক্ষিত প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শিক্ষক রয়েছেন যাঁদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় স্টামফোর্ড কলেজের ছাত্রছাত্রীরা বরাবরই ভালো ফলাফল করে থাকে। এখানকার ছাত্রছাত্রীদের ইংরেজি বিষয়ে বিশেষ যতœ নেয়া হয় বলে তাদের আলাদা করে IELTS, Spoken English, Basic English ইত্যাদি কোর্স করার প্রয়োজন হয় না। স্টামফোর্ড কলেজ সবসময় শিক্ষার্থী তার পরিবারের কথা চিন্তা করে যুগোপযোগী শিক্ষা দিয়ে থাকে।

 

স্টামফোর্ড কলেজের চলার পথে এবং এর সফল কর্মকান্ডে আপনিও আমাদের সহযোগী হবেন এই প্রত্যাশাই করি।

 

 

 

ফাতিনাজ ফিরোজ

চেয়ারম্যান, গভর্নিং বডি.

স্টামফোর্ড কলেজ।

চেয়ারম্যান, গভর্নিং বডি ও প্রেসিডেন্ট, বোর্ড অব ট্রাস্টিজ

স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ।

প্রতিষ্ঠাতা ভাইস চ্যান্সেলর, স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ।

X